বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূকে মারধর, প্রতিবাদ করায় প্রবাসী ভাইয়ের ওপর হামলা

লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূকে মারধর, প্রতিবাদ করায় প্রবাসী ভাইয়ের ওপর হামলা

লক্ষ্মীপুরে নাজমুন নাহার (২৮) নামের এক গৃহবধূকে দফায়-দফায় মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে তার ভাশুর আবুল কালামের (৪৫) বিরুদ্ধে। এঘটনার প্রতিবাদ করায় গৃহবধূর প্রবাসী বড় ভাই মো. ফিরোজের (৩০) ওপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। এসময় তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও  স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়।
বুধবার (২২ নভেম্বর) রাতে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতলে আহত ও তাদের স্বজনদের সাথে কথা বলে মারধর ও  হামলার বিষয়টি জানা গেছে। এর আগে দুপুরে আহত ভাই-বোন দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সকাল ১১ টার দিকে লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার চর চামিতা এলাকার রতনেরখীল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
আহত গৃহবধূ রতনেরখীল গ্রামের সৌদি প্রবাসী আবদুল বাতেনের স্ত্রী। ফিরোজ আহত গৃহবধূর বড়ভাই; পার্শ্ববর্তী উত্তর জয়পুর গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। অভিযুক্ত গৃহবধূর ভাশুর আবুল কালাম রতনেরখীল গ্রামের মৃত মোবারক উল্লাহর ছেলে।
লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত গৃহবধূ নাহার বলেন, তার স্বামী বিদেশে থাকায় ভাশুর প্রায়ই বিভিন্ন অজুহাতে তার কাছ থেকে টাকা নিতেন। গত কয়েকদিন থেকে কোনো কারণ ছাড়াই টাকার জন্য চাপ দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) রাতে তাকে চড়-থাপ্পর দেয়। পরদিন বুধবার (২২ নভেম্বর) সকালে মারধর করে। এসময় ইট দিয়ে তার মাথায় আঘাত করলে আহত হন। বিষয়টি জানতে পেরে তার প্রবাসী বড় ভাই তাকে দেখতে গিয়ে প্রতিবাদ করলে তার ওপর হামলা চালায়।
আহত ফিরোজ জানান, তার বোনকে জখম করার বিষয়ে প্রতিবাদ করলে লম্পট আবুল কালাম তারসহযোগী দুলালকে নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়; ছিনিয়ে নেয় মোটরসাইলেক ও স্বর্ণের চেইন।  তবে, এই ব্যাপারে অভিযুক্ত আবুল কালামের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতলের দায়িত্বরত চিকিৎসক জয়নাল আবেদিন বলেন, আহত গৃহবধূর মাথায় জখম রয়েছে। তাতে সেলাই দিতে হয়েছে। তার ভাইয়ের মুখে জখম আছে। তারা দুইজনই হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।
চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোক্তার হোসে বলেন, বিষয়টি শুনেছি; ব্যাপারে দতন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।