মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

লক্ষ্মীপুরে কৃষকের জমি দখলে নিতে হামলা

লক্ষ্মীপুরে কৃষকের জমি দখলে নিতে হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরে জমি জোর পূর্বক দখলে নিতে কৃষক জামাল উদ্দিনের পরিবারের ওপর আকরাম হোসেন নামে এক নির্মাণ প্রকৌশলীর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মামলা করায় আকরামের লোকজন বাদীকে হুমকি দিয়ে আসছে। সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে কৃষক জামাল আসামিদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে সাংবাদিকদের এ অভিযোগ করেন।

মামলার আসামিরা হলেন নির্মাণ প্রকৌশলী আকরাম হোসেন, কামাল উদ্দিন, মজিব উল্যা, রাহেন, রিনা আক্তার ও শামছুল হক। তারা সদর উপজেলার টুমচর গ্রামের বাসিন্দা।

এজাহার সূত্র জানায়, টুমচর গ্রামের কৃষক জামালের সঙ্গে আকরামদের দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। কৃষকের জমি দখলে আকরাম বিভিন্নভাবে পাঁয়তারা করেছে। কিন্তু না পেরে গত ৭ সেপ্টেম্বর আকরাম ভাড়াটে লোকজন নিয়ে জামালের বাড়িতে হামলা করে। এসময় বাধা দিলে জামাল, তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম ও ছেলে আনোয়ার হোসেনকে তারা লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে তাদেরকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। হামলার সময় কৃষকের দুটি ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করায় প্রায় ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে স্বর্ণালংকারসহ ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা লুটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ এজাহারে উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনায় ১০ সেপ্টেম্বর কৃষক জামাল বাদী হয়ে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে (সদর) ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

জানা গেছে, কৃষকের মামলাটিকে প্রভাবিত করার লক্ষ্যে ১৩ সেপ্টেম্বর আকরাম বাদী হয়ে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে (সদর) ৫ জনের নাম উল্লেখ করে পাল্টা মামলা দায়ের করে।

ভূক্তভোগী কৃষক জামাল উদ্দিন বলেন, আমার জমি জোরপূর্বক দখলে নিতে আকরাম বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেছে। কিন্তু না পারায় ভাড়াটে লোকজন দিয়ে হত্যা করার উদ্দেশ্যে আমার ওপর হামলা চালিয়েছে। আমি এ ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করেছি।

অভিযোগ অস্বীকার করে নির্মাণ প্রকৌশলী আকরাম হোসেন জানান, তার ঘরের সামনে জামাল সিম গাছ রোপন করেছিল। এতে ঘরে প্রবেশ করা যাচ্ছিলো না। পরবর্তীতের অভিযোগ দিলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন সিম গাছগুলো চৌকিদারদের দিয়ে কেটে প্রবেশপথ পরিস্কার করে দেয়। এনিয়ে জামালের লোকজন তার ওপর হামলা চালায়। একপর্যায়ে তার বাগানের কিছু গাছপালাও কেটে নেয়।

এ ব্যাপারে টুমচর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) আবদুল মন্নান বাবুল বলেন, ঘটনার দিন আমি এলাকায় ছিলাম না। তবে শুনেছি হামলার ঘটনায় দু’পক্ষই আদালেত পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করেছে।

  • Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Print
Copy link
Powered by Social Snap