বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

Month: সেপ্টেম্বর ২০১৯

কমলনগরে গ্রেড বাস্তবায়নের দাবিতে শিক্ষকদের মাববন্ধন

কমলনগরে গ্রেড বাস্তবায়নের দাবিতে শিক্ষকদের মাববন্ধন

কমলনগর, টপ সেকশন-২
নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে সহকারি শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড ও প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করেন শিক্ষক নেতারা।  বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকালে উপজেলা পরিষদের সামনে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা শিক্ষক নেতা আবদুর রহমান সেলিম, মোহাম্মদ নুরুল আমিন, মো. মাকছুদুর রহমান ও মো. সফিকুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ২০১৪ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদেরকে ১১তম গ্রেড ও প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা দিয়ে ১০ম গ্রেডে উন্নিত করার আশ্বাস দিয়েছে সরকার। কিন্তু তা আজও বাস্তবায়ন হয়নি। আমাদের গ্রেড উন্নিত করতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।
হাজিরহাট উপকূল কলেজের অধ্যক্ষ হলেন অধ্যাপক জাকির হোসেন

হাজিরহাট উপকূল কলেজের অধ্যক্ষ হলেন অধ্যাপক জাকির হোসেন

টপ সেকশন-১, শিক্ষা, সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের হাজিরহাট সরকারি উপকূল ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ হয়েছেন অধ্যাপক মো. জাকির হোসেন। রাষ্ট্রপতির আদেশ ক্রমে উপ-সচিব ড. শ্রীকান্ত কুমার চন্দ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপন থেকে এ তথ্য জানা যায়। রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) ‘মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এ প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করে। প্রজ্ঞাপন থেকে জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মো. জাকির হোসেনকে হাজিরহাট সরকারি উপকূল ডিগ্রি কলেজে অধ্যক্ষ পদে পদায়ন করা হয়েছে। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে অধ্যাপক মো. জাকির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বদলি/পদায়নকৃত চিঠি তিনি পেয়েছেন। অধ্যক্ষ পদে দায়িত্ব পালনে তিনি সবার সহযোগীতা প্রত্যাশা করছেন। প্রসঙ্গত, গত বছর হাজিরহাট উপকূল ডিগ্রি কলেজকে সরকারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। কলেজ সরকারি হওয়ার পর অধ্যক্ষ পদ শূন্য হয়; এরপর থেকে ওই কলেজের শিক্ষক লোকমান হোসে
লক্ষ্মীপুরে প্রতিবন্ধী পরিবারের ভিটেমাটি দখলের চেষ্টা

লক্ষ্মীপুরে প্রতিবন্ধী পরিবারের ভিটেমাটি দখলের চেষ্টা

টপ সেকশন-১, লক্ষ্মীপুর, সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরে সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব আলাদাদপুর গ্রামে এক প্রতিবন্ধী নারী ও তার বাবা মাকে মারধর করে জোরপূর্বক তাদের বসতঘর দখলের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে স্থানীয় চন্দ্রগঞ্জ প্রেসক্লাবে ওই ভুক্তভোগী পরিবার সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন। এসময় তারা জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানান। ভুক্তভোগী পরিবারের মো. তারেক লিখিত অভিযোগে বলেন, দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে তারা যে জমিতে বসবাস করে আসছে, তা দখল করতে উঠে পড়ে লেগেছে একই গ্রামের বাসিন্দা আবু, সাইফুল, আজাদ, সায়মন, সুমন, মোসলেহ উদ্দিন, তানভির সিকদার ও নুরুল হুদা। তারা গত একমাসে একাধিকবার দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের বসতভিটা দখল করতে আসে। এ সময় বাধা দিলে বাবা-মা, প্রতিবন্ধী বোন ও ভাগনিকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। তারা এই ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করার দাবি জানান সংবাদ সম্মেলনে।
অক্টোবরে আসতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘হিকা’

অক্টোবরে আসতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘হিকা’

খবর, জলবায়ু, সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
ঢাকা: বর্ষা মৌসুম শেষ হবে অক্টোবরের প্রথমার্ধে। বৃষ্টি-বাদলের বিদায়বেলায় প্রকৃতি দেখাতে পারে আরেক রুদ্রমূর্তি। আবহাওয়া অফিস বলছে, অক্টোবরে আরেকটি ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে। এমনটি হলে তার নাম হবে ‘হিকা’। আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদের তৈরি দীর্ঘমেয়াদী এক পূর্বাভাস থেকে এমনটি জানা গেছে। ইতোমধ্যে পূর্বাভাসটি দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সব দফতরে পাঠানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অক্টোবর মাসে বাংলাদেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হবে। তবে, বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দু’টি নিন্মচাপ সৃষ্টি হতে পারে। এর মধ্যে অন্তত একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়া অফিসের দেওয়া ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণের তালিকা থেকে দেখা গেছে, ফণী ও বায়ুর পর এবার যে ঝড়টি আসবে, সেটির নামকরণ হবে হিকা। এ নাম দিয়েছে মালদ্বীপ। পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অক্টোবরের প্রথমার্ধেই দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু তথা বর্ষাকাল বা
বিশ্বকাপ বাছাইয়ে চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশের নারীরা

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশের নারীরা

খেলা
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ফাইনালে থাইল্যান্ডকে ৭০ রানের ব্যবধানে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল। বাংলাদেশের নারীদের ১৩০ রানের জবাবে ৬০ রানেই শেষ হয় থাই নারীদের ইনিংস। বাংলাদেশের ছুড়ে দেওয়া ১৩১ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে টাইগ্রেস বোলারদের একের একের এক আঘাতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে থাই ব্যাটাররা। ১৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলা থাই নারীরা আসা-যাওয়ার মিছিল করেছেন যেন। দুই অঙ্কের দেখা পেয়েছেন মাত্র ২ ব্যাটার। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করেও আইরশদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬০ রানে। বল হাতে টাইগ্রেসদের নাহিদা আক্তার ও শায়লা শারমিন নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। আর ১টি করে উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন সালমা খাতুন ও খাজিদা তুল কুবরা। এর মধ্যে সালমা খাতুন ৪ ওভারে ২ মেডেনসহ খরচ করেছেন মাত্র ৪ রান। ২ ওভারে ৩ রান খরচ করেছেন জাহানারা আলম। শনিবার (০৭ সেপ্টেম্বর) টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেয়