বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

টপ সেকশন-২

স্বাধীনতার শক্তি আ.লীগকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে : পিংকু

স্বাধীনতার শক্তি আ.লীগকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে : পিংকু

টপ সেকশন-২
লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু নির্বাচনী কর্মী সভা অব্যাহত রেখেছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী। এনিয়ে তিনি গত দুই বছরে নির্বাচনী এলাকার ১৫ টি ইউনিয়নে সভা করেছেন। পর্যায়ক্রমে নির্বাচনী এলাকার সব ইউনিয়ন ও পৌরসভাতেও কর্মীসভার পাশাপাশি উঠান বৈঠক ও নারী সমাবেশ করার পরিকল্পনা রয়েছে তার। তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন সাফল্য তুলে ধরে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও শেখ হাসিনাকে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহবান জানান। ঘোষনা দেন, লক্ষ্মীপুরের পূর্বাঞ্চলে সন্ত্রাসী বাহিনী আর অস্ত্রধারীদের অভয়ারণ্য হবে না। এখন আর নিত্য গোলাগুলি- বোমার আওয়াজ শোনা যায় না। আওয়ামী লীগ সরকারই কঠোর হস্তে সন্ত্রাস নির্র্মূল করে মানুষের শান্তিতে ঘুমানো নিশ্চিত করেছে। দলীয় সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগ নেতা পিংকু সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ২০১৬ সালে ভ
বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এড. শামছুল আলম

বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এড. শামছুল আলম

টপ সেকশন-২
নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনটি বিএনপি’র ঘাঁটি হিসাবে পরিচিত। নির্বাচন ঘনিয়ে এলেই আসনটি আলোচনায় উঠে আসে। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে এখন চলছে নানা হিসাব-নিকাশ। উঠে আসছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নাম। এদিকে, মনোনয়ন প্রত্যাশিরাও মাঠে দৌঁড়ঝাপ করছেন। তারা কেন্দ্র থেকে শুরু করে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন; বিভিন্ন সামাজিক ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে অংশ নিচ্ছেন। এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন চাইছেন বিএনপি’র সাবেক সংসদ সদস্য এবিএম আশরাফ উদ্দিন নিজান ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু। সম্প্রতি শুনা যাচ্ছে বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কমলনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ শামছুল আলম দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ শামছুল আলম লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনিপি’র সাবেক সভাপতি। ১৯৮৩ সাল থেকে ২১ব
ডা.সালাহ উদ্দিন শরীফের কারাদন্ড

ডা.সালাহ উদ্দিন শরীফের কারাদন্ড

আদালত, টপ সেকশন-২, লক্ষ্মীপুর, সদর, সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
লক্ষ্মীপুর : লক্ষ্মীপুরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শেখ মুর্শিদুল ইসলামের সঙ্গে অসাদচরণের অভিযোগে সাবেক ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা.সালাহ উদ্দিন শরীফকে আটকের পর কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে শহরের কাকলি শিশু অঙ্গণ বিদ্যালয়ে প্রবেশকে কেন্দ্র করে দু’জনের বাক বিতন্ডার পর হাতাহাতির ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে সালাহ উদ্দিন শরীফকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়। পরে পুলিশ সালাহ উদ্দিনকে কারাগারে পাঠান। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নুরুজ্জামান। এ ঘটনার পর বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা জেলা প্রশাসক হোমায়রা বেগমের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। পরে জেলা প্রশাসক আইনি সহযোগিতার আশ্বাস দিলে শান্ত হন তারা। তবে এসব ঘটনা সম্পর্কে গণমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলতে রাজি হননি প্রশাসনের
নাগরিক সুবিধা নেই, পিছিয়ে রামগতি পৌরসভা

নাগরিক সুবিধা নেই, পিছিয়ে রামগতি পৌরসভা

টপ সেকশন-২, রামগতি, সমস্যা-সম্ভাবনা, সাক্ষাৎকার
রামগতি : ১৪হাজার ৭৮০ মিটার কাঁচা রাস্তা। ড্রেনেজ ব্যবস্থা নেই। ঘরে-ঘরে বিদ্যুত পৌঁছেনি। বিশুদ্ধ পানির অভাব। ময়লা অবর্জন পেলতে নিদিষ্ট ব্যবস্থা নেই। রাস্তায় চলতে অন্ধকারে নেই আলো। পর্যাপ্ত স্যানিটেশন ব্যবস্থার অভাব। সামান্য পাকা রাস্তা থাকলেও সংস্কার অভাবে ব্যবহারের অযোগ্য। এসব পরিস্থিতিতে পিছিয়ে রয়েছে লক্ষ্মীপুরের রামগতি পৌরসভা। এতে সুবিধা বঞ্চিত হচ্ছে নাগরিক। সম্প্রতি পৌরসভাটি ‘গ’ থেকে ‘খ’ শ্রেণিতে উন্নীত হয়েছে। কিন্তু বাড়িনি নাগরিক সুবিধা। লক্ষ্মীপুর জেলায় সর্বশেষ গঠিত হয়েছে রামগতি পৌরসভা। ২০০০ সালে রামগতি পৌরসভা গঠিত হয়। উপজেলার চর আলেকজান্ডার, চর আলগী ও চর বাদাম ইউনিয়নের কিছু অংশ নিয়ে মেঘনা নদীর কোল ঘেষে ১১.৮১ বর্গ কিলোমিটার আয়তন নিয়ে এ পৌরসভা। এটি ৯টি ওয়ার্ডে বিভক্ত করা হয়। মেঘনার ভাঙনে পৌর এলাকার আয়তন কমলেও জনসংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৩৫ হাজারে। এ পৌরসভায় কোন কলকারখানা, শিল্প
লক্ষ্মীপুরে ৪৮ বীজাগার ব্যবহার অযোগ্য

লক্ষ্মীপুরে ৪৮ বীজাগার ব্যবহার অযোগ্য

অনিয়ম, অর্থনীতি, কৃষি, খবর, টপ সেকশন-২, সদর
লক্ষ্মীপুরের প্রান্তিক কৃষকদের কল্যাণে ষাটের দশকে কৃষি বিভাগ ৫২টি ইউনিয়নে একটি করে বীজাগার স্থাপন করে। ওইসব বীজাগারের মধ্যে এখন ৪৮টি ব্যবহারের অযোগ্য। যে কারণে এখানকার কৃষকরা বীজাগারের সুফল পাচ্ছেন না।এতে কৃষি উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে। সম্প্রতি জেলার কয়েকটি ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছে, অব্যবহৃত এসব বীজাগারের দেয়াল ও ছাদের পলেস্তরা খসে পড়ছে, দরজা-জানালা ভাঙ্গা। ঝাঁপ-ঝোপে শিয়াল-কুকুরের বসবাস। ভূতুড়ে পরিবেশে মাদকসেবীদের আড্ডা।এদিকে, রামগতিতে মেঘনার ভাঙনেও একটি বিলীন হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জেলার সব বীজাগারের ভবন জরাজীর্ণ।   নির্মাণের পর সংস্কার না করায় ব্যবহারের অনুপযোগী এসব ভবনপরিত্যক্ত রয়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা প্রায় অর্ধেক জমি দখল করে ব্যক্তিগত কাছে ব্যবহার করছেন। অন্যগুলোও দখলে নেওয়ারপাঁয়তারা করছেন। কেবলমাত্র তিনটি বীজাগার ব্যবহার করছে কৃষি বিভাগ। স্থানীয় প্রবীন কৃষকরা জানান, ইউনিয়ন