মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

শিল্প-সাহিত্য

মুক্তিযোদ্ধা নুরের নবী চৌধুরীর কিছু কথা

মুক্তিযোদ্ধা নুরের নবী চৌধুরীর কিছু কথা

শিল্প-সাহিত্য, সাক্ষাৎকার
নতুন প্রজন্মের উদ্দেশ্যে মুক্তিযোদ্ধা নুরের নবী চৌধুরী বলেন, লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এ দেশ। আমরা জীবনবাজি রেখে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। দেশটাকে সোনার বাংলায় পরিণত করলে বঙ্গবন্ধুসহ শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে। তিনি  শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি প্রতিবেদককে এ কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের এই ভাষণের পরপরই বাঙ্গালি জাতি স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রস্তুতি গ্রহণ করে। বয়সে তরুণ আমিও যুদ্ধে যাওয়ার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছিলাম। এভাবেই মুক্তি যুদ্ধের উত্তাল দিনগুলোর কথা স্মরণ করেন তিনি। ১৯৪৯ সালের ১ জানুয়ারি লক্ষীপুর সদর উপজেলার বাংগাখাঁ ইউনিয়নের নেয়মাতপুর গ্রামের দারাগাজী বেপারী বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন নুরের নবী চৌধুরী। তাঁর বাবার নাম আবিদ উ
নতুন প্রজন্মকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে হবে : মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার

নতুন প্রজন্মকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে হবে : মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার

শিল্প-সাহিত্য, সাক্ষাৎকার
সময় ১৯৭১ সাল। মহান মুক্তিযুদ্ধ। ১৬ বছরের দুরন্ত কিশোর ছিলেন আবুল বাশার। তৎকালীন লক্ষ্মীপুর সামাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ছিলেন। বোডিংয়ে (ছাত্রবাস) থেকে লেখাপড়া করতেন তিনি। যুদ্ধ শুরু হয়। বাংলাদেশ স্বাধীনের লক্ষ্যে যুদ্ধে যোগ দিতে প্রশিক্ষণের জন্য ভারতে যান। দেশ স্বাধীন করতে জীবনের মায়া ত্যাগ করে প্রশিক্ষণ শেষে যুদ্ধে যোগ দেন। মুক্তিযুদ্ধের সাহসী সৈনিকে পরিণত হন সেই কিশোর। তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন- আমরা দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছি। নিজেদের অধিকার ছিনেয়ে এনেছি। তাই তরুণদের প্রতি আমার আহবান- তোমরা আগামির ভবিষ্যৎ। দেশ ও জাতির মঙ্গলের জন্য কাজ করবে। নিজ স্বার্থকে ভুলে গিয়ে অন্যের প্রতি বাড়িয়ে দিতে হবে সহযোগীতায় হাত। এ প্রজন্মকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে হবে। সর্বোচ্চ পড়ালেখা করে দেশ ও জাতির উন্নয়নে কাজ করবে। তোমরাই পারবে বিশ্বের দরবারে বাং
শিশুদের ছবি আঁকা  প্রতিযোগীতা

শিশুদের ছবি আঁকা প্রতিযোগীতা

লক্ষ্মীপুর, শিল্প-সাহিত্য, সদর
জাতিসংঘের শিক্ষা, সংস্কৃতি ও বিজ্ঞান বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণকে প্রামণ্য দলিলের স্বীকৃতি দিয়েছে। এ উপলক্ষে লক্ষ্মীপুরে ছবি আঁকা প্রতিযোগীতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়। শুক্রবার দুপুরে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে লক্ষ্মীপুর শিশু একাডেমী এ আয়োজন করে। প্রতিযোগীতা শেষে লক্ষ্মীপুর জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল জব্বারের সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মাইন উদ্দিন পাঠান। প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ লক্ষ্মীপুর জেলা ইউনিট কমান্ডার বাবু কাজল কান্তি দাস। অনুষ্ঠানে কাকলি শিশু অঙ্গনের প্লে-শ্রেণির ছাত্র ও শিশু একাডেমী চিত্রাংকন বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী আহমেদ শেহজাদ যিয়ান বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ দেয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন-চিত্রাংন