শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

রায়পুর ভূমি অফিসের তছলিমের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

রায়পুর ভূমি অফিসের তছলিমের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তার কার্যালয়ের নাজির মোঃ তছলিম উদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে সেবার নামে অর্থ বাণিজ্য ও হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। তিন বছর ধরে রায়পুরে কর্মরত তিনি। দুর্নীতির মাধ্যমে নিজের পকেট ভারি করা এ কর্মকর্তার বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে সম্প্রতি ভূমি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জেলা প্রশাসকসহ (ডিসি) প্রশাসনের বিভিন্ন কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ করা হয়। পৌরসভার দেনায়েতপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেন, নুরুল আমিন ও মোঃ সেলিম লিখিত এ অভিযোগ করেন। অভিযোগে বলা হয়, তছলিমের ঘুষ ও দুর্নীতির কারণে জেলা প্রশাসকের রাজস্ব শাখায় বদলী করা হয় সাবেক জেলা প্রশাসক (ডিসি)। পরে তিনি দুই লাখ টাকার বিনিময়ে রায়পুর ভূমি কর্মকর্তার কার্যালয়ে পূনরায় বহাল থাকেন বলে জনশ্রুতি রয়েছে। ওই কার্যালয়ের অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে একাধিকবার ঘুষের টাকা নিয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। সরকারি নিয়ম উপেক্ষা করে তিনি জমির জমাখারিজ করে দেওয়ার নামে সেবা প্রত্যশীদের কাছ থেকে ২ হাজার ৭০০ টাকা করে আদায় করেন। অবৈধভাবে অর্থ হাতিয়ে তিনি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মধ্যে বহুতল ভবন ও পরিবারের সদস্যদের নামে-বেনামে বিপুল পরিমান সম্পদ গড়েছেন। তদন্ত করলে অভিযোগের সত্যতা মিলবে বলে বলা হয়। অভিযোগে আরো বলা হয়, সাবেক সহকারী কমিশনার (ভূমি) শামিম হোসেনের দায়িত্বে থাকাকালে ৬০০ নামজারী জমা-খারিজ নথি ডিসিআর না কেটে টাকা নিজে আত্মাসাতের চেষ্টা করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে ওই কর্মকর্তা (শামিম হোসেন) তাকে কার্যালয়ের একটি কক্ষে আটক রাখে। পরে তার কাছ থেকে রাজস্বের ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা আদায় করা হয়। তছলিমের কর্মকান্ডে ক্ষুদ্ধ সেবা প্রত্যাশীরা। এ ব্যাপারে নাজির মোঃ তছলিম উদ্দিন চৌধুরী জানান, জমাখারিজ করার দায়িত্ব আমার না। এসব আমি দেখি না। তাকে আটক করে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা আদায় করার বিষয়েও তিনি অস্বীকার করেন। অন্য অভিযোগগুলো মিথ্যা বলে দাবি করেন তিনি।
  • Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Print
Copy link
Powered by Social Snap