মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

পথশিশুরা কি বসন্তের আনন্দে ভাগ বসাতে পেরেছে?

পথশিশুরা কি বসন্তের আনন্দে ভাগ বসাতে পেরেছে?

হাসান মাহমুদ শাকিল : আজ থেকে শুরু ঋতুরাজ বসন্ত। নানান আয়োজনের আর হৈ হুল্লোড় করে বসন্তকে বরণ করা হয়েছে। অনেকেই সেজেছে নতুন পোশাকে। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে আনন্দ-উচ্ছাসে গানের সুরে, নৃত্যের তাল আর বাদ্যের ঝংকারে মুখরিত হয়ে উঠেছে। কিন্তু পথশিশুরা কি বসন্তের আনন্দে ভাগ বসাতে পেরেছে? হয়তো পারে নি। কারণ তাদের সাথে আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার কেউ নেই। তারা অসহায়। পেট ভরে দু’মুঠো খেতে পারলেই তাদের আনন্দ। নিত্য তারা দু’মুঠো খাবারের জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছে। এছাড়া আছে নদীভাঙ্গা হাজারো মানুষ। নদীর ভয়াবহ ভাঙনে সর্বস্ব হারিয়েছেন যারা। যাদের এক সময় অনেক ধন-সম্পদ থাকলেও এখন তারা নিঃসম্বল। তারা সময়মতো তাদের ছেলে মেয়েদের মুখে দু’মুঠো খাবার তুলে দিতেও পারছেন না। তারাও পারেনি আজকে বসন্তের এ উৎসবের সাথে সামিল হতে। কথায় আছে- ঋতুতে নয়, বসন্ত হচ্ছে মনে। মনের বসন্তে জাগ্রত থাকলে পৃথিবীটা অনেক সুন্দর হবে। ঋতুর সঙ্গে মানুষের মনের রঙ বদলায়। কিন্তু সেসব পথশিশু কিংবা নদীভাঙ্গা মানুষগুলোর মনেতো আনন্দ বাসা বাঁধছে না। তারা কি এ বসন্তে অন্যদের মতো হাওয়ায় গা-ভাসাতে পারবে না? হয়তো পারতো। যদি তাদের সাথে সময় কাটানোর মতো কেউ থাকতো। তাদের মনে আনন্দ জোগাতে কেউ তাদের সাথে একটু প্রাণ খুলে কথা বলতো। তাদের দুঃখ কষ্টের সঙ্গী হয়ে যদি তাদের একটু খোঁজখবর নেওয়া হত। আমরা কি পারি না তাদের সাথে একটু সময় কাটাতে? আমরা কি পারি না মাঝেমধ্যে তাদের খোঁজ খবর নিতে? হ্যা পারি। মানুষের বিবেকের কাছে সবই সম্ভব। শুধু একটু ভালোবাসা ও স্পৃহা থাকা দরকার সেসব মানুষের জন্য।
  • Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Print
Copy link
Powered by Social Snap