বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

দীপিকা নেদারল্যান্ডসের নাগরিক!

দীপিকা নেদারল্যান্ডসের নাগরিক!

১ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে দীপিকা পাড়ুকোন, রণবীর সিং, শাহিদ কাপুর অভিনীত সঞ্জয় লীলা বনসালির পদ্মাবতী। এ ছবির মুক্তিকে ঘিরে ভারত জুড়ে বিতর্ক বাড়ছে। পদ্মাবতীর মুক্তি আটকাতে তৎপর ভারতের বহু রাজনৈতিক সংগঠন।

এর মধ্যেই পদ্মাবতী ইস্যুতে দেশটির সাংসদ ও বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী পদ্মাবতী চরিত্রে অভিনয় করা দীপিকা পাড়ুকোনকে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করেছেন। সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যম নিউজ-১৮ কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই সাংসদ দাবি করেন, দীপিকা নেদারল্যান্ডসের নাগরিক এবং ভারতের অখণ্ডতা নিয়ে দীপিকা প্রশ্ন তুলতে পারেন না।

এমন মন্তব্যের কারণ দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পদ্মাবতীকে ফিল্ম সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র দেয়া নিয়ে দীপিকা বলেছিলেন, একমাত্র সিবিএফসি’র কাছেই আমরা দায়বদ্ধ। অন্য কেউ ছবির মুক্তি আটকাতে পারবে না।

দীপিকা আরো বলেন, এটা অত্যন্ত আতঙ্কের। আমরা কোথায় নিয়ে যাচ্ছি নিজেদের? কোন অবস্থায় রয়েছে আমাদের দেশ?

উল্লেখ্য, পদ্মাবতী সিনেমায় ইতিহাস বিকৃত হয়েছে এমন অভিযোগে বেশ উত্তাল ভারত। মূল অভিযোগ এসেছে বিজেপির কাছ থেকে।

তবে প্রযোজনা সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইতিহাসকে কোনোভাবে ছবিতে বিকৃত করা হয়নি সিনেমাটিতে। আলাউদ্দিন খিলজি ও রানি পদ্মাবতীর মধ্যে কোনো প্রেমের সম্পর্ক দেখানোর চেষ্টা করা হয়নি।

তারপরও ‘পদ্মাবতী’ দীপিকার ফার্স্টলুক প্রকাশ্যে আসার পর রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে পোস্টার পোড়ানো হয়। গেরুয়া শিবিরের তরফে মামলাও করা হয়েছে। এমনকি পদ্মাবতী মুক্তি পেলে সিনেমা হলে আগুন দেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে।