বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

তোরাবগঞ্জ-মতিরহাট সড়ক সংস্কারে ব্যাপক অনিয়ম

তোরাবগঞ্জ-মতিরহাট সড়ক সংস্কারে ব্যাপক অনিয়ম

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার তোরাবগঞ্জ-মতিরহাটসড়কে ব্যাপক অনিয়মের মধ্যে দিয়ে সংস্কার কাজ চলছিলো। নিন্মমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে সিডিউল বহিঃভূতভাবে দরপত্রের শর্তভঙ্গ করে কাজ করায় স্থানীয়রা বাঁধা দেয়। এ বিষয়ে এলাকাবাসী অভিযোগ করেন কর্তৃপক্ষের কাছে। ৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রকৌশলী সরেজমিন গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। ১০দিন কাজবন্ধ রেখে কৃর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই ঠিকাদার শনিবার (১৫ডিসেম্বর) রাত শুরু করে। রাতের আধাঁরে আবারও নিন্মমানের কাজ করায় স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ ও অসন্তোষ দেখা দেয়। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এজিইডি) কামলনগর কার্যালয় সূত্রেজানা গেছে, ওই সড়কে ২ হাজার ৫ মিটার সংস্কারের জন্য টেন্ডার হয়। যারপ্রাক্কলিত ব্যায় ধরা হয়েছে প্রায় ৪০লাখ টাকা। কাজটি পায় রেভ আরসি লিমিটেড নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। তবে কাজটি করেছেন লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বাসিন্দা ঠিকাদার মোহাম্মদ সবুজ। তিনি প্রভাবশালী হওয়ায় কোনো শর্ত অনুসরণ না করে নিয়মবহিঃভূতভাবে দায়সারাভাবে কাছ করছিলেন। নিন্মমানের নির্মাণসামগ্রী দিয়ে সড়কের সংস্কার কাজ করায় স্থানীয়রা কাছে বাঁধা দেয় ও অভিযোগ করে। স্থানীয় বাসিন্দা ও ওই সড়কের সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালকরা বলেন, সংস্কারে নিন্মমানের ইট ব্যবহার করা হয়েছে। নামেমাত্র বিটুমিন দিয়ে কাছ করছে; তাও নিন্মমানের। রাস্তায় পাতলা করে কার্পেটিং দেওয়া হচ্ছে। ব্যাপক অনিয়মের মধ্যে দিয়ে নিন্মমানের কাজ হওয়ায় অল্পকয়েক দিনের মধ্যে সড়কটি ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়বে। এতে দুর্ভোগের অন্ত থাকবে না। কমলনগর উপজেলা প্রকৌশলী সোহেল আনোয়ার বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে সরেজমিন গিয়ে অনিয়মের সত্যতা পেয়ে কাজ বন্ধ করে উর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষ জানানো হয়েছে। বর্তমানে কাজ বন্ধ থাকার কথা। ফের কাজ শুরু হওয়ার বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। দরপত্রের চুক্তির শর্ত অনুযায়ী রাস্তার কাজ ঠিকঠাকমতো বুঝে নেওয়া হবে। ঠিকাদার সবুজ বলেন, বেশ কিছুদিন তিনি অসুস্থ থাকায় কাজ বন্ধ ছিলো। সুস্থ হওয়ায় আবারও কাজ শুরু হয়েছে। কাজ বন্ধ রাখার বিষয়ে কোনো চিঠি পাননি বলে জানান তিনি।