রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

তাসনীমের অঙ্কনে জলোচ্ছ্বাসে ভাসা তরুণ সংবাদকর্মী জুনাইদের সংবাদ সংগ্রহের দৃশ্য

তাসনীমের অঙ্কনে জলোচ্ছ্বাসে ভাসা তরুণ সংবাদকর্মী জুনাইদের সংবাদ সংগ্রহের দৃশ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক : হঠাৎ মেঘনার অস্বাভাবিক জলোচ্ছ্বাসে ভেসে যাচ্ছে উপকূলের সব। মানুষের দোকানপাট, মসজিদ, ঘর-বাড়ি, গৃহপালিত গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগি, বন্যাপ্রাণী কুকুরসহ নানান জীবজন্তু। ঠিক এ সময়ে খবর পেয়ে মেঘনাপাড়ে ছুটে যান উদিয়মান তরুণ সাংবাদিক জুনাইদ আল হাবিব। জলোচ্ছ্বাস যখন সব কিছু ভেসে নিচ্ছে, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তথ্য সংগ্রহে পিছপা হননি ওই তরুণ সাংবাদিক। 
বাস্তবে ঘটে যাওয়া চিত্র ধারণ করে পেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়েছেন তিনি। তুলে এনেছেন মেঘনার ভয়াবহ তান্ডব চিত্র। দেশের মূল ধারার সংবাদমাধ্যমে ছাপা হয়েছে তার তোলা ছবি। তার ভিডিও প্রতিবেদন ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়।  
খবর সংগ্রহের সময় তার খবর সংগ্রহের দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করেন নুরে আলম পাটোয়ারী নামে রেড ক্রিসেন্টের এক সদস্য। সেটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোড়ন তোলে। 
ছবিটি চোখে পড়লে নাড়া দেয় অঙ্কনশিল্পী ফাতেমা-তুজ-জোহরা তাসনীমের হৃদয়। নিজের মতো করে আঁকতে থাকেন সে দৃশ্য। এক পর্যায়ে সফলও হন। তাসনীমের আঁকা সে ছবিটিও এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল। প্রশংসা কুড়াচ্ছে তার আঁকা ছবিটি। 
তাসনীম ছবিটি আঁকা সম্পর্কে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ছবিটি দেখে আমার খুবই খারাপ লাগলো। মানুষের এত কষ্ট! তারপর মোবাইলে ঘষে ছবিটি আঁকি। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমাদেরকে বাস্তব চিত্র দেখানোর জন্য যে সকল সাংবাদিক ভাইয়েরা কষ্ট করে যান, তাদের প্রতি শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা। ঠিক এ ছবিটিতে উঠে এসেছে, তরুণ সাংবাদিক জুনাইদ আল হাবিব জলোচ্ছ্বাসের ভয়কে উপেক্ষা করেও যে আমাদের ঘটে যাওয়া বাস্তব চিত্র তুলে ধরার জন্য জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন৷ 
ফাতেমা-তুজ-জোহরা তাসনিম লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স ২য় বর্ষে পড়েন। তার গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে। 
তাসনিমের আঁকা ছবি এর আগেও জেলার বই মেলাতে প্রদর্শিত হয়েছে। এ পর্যন্ত তাঁর আকা ছবির সংখ্যা ৩'শ।
  • Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Print
Copy link
Powered by Social Snap