বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯সত্য ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নে...

আগামী নির্বাচনে আ.লীগ বিজয়ী হবে : ওবায়দুল কাদের

আগামী নির্বাচনে আ.লীগ বিজয়ী হবে : ওবায়দুল কাদের

আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হবে বলে দলের নেতাদের মধ্যে আস্থা আছে। এ কথা জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলটির সাধারণ এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।  তিনি বলেছেন, আমাদের কনফিডেন্স আছে। আমরা বিজয়ী হবো। আমাদের কাজ আছে। আমাদের উন্নয়ন-অর্জন আছে।<br/><br/> শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বিকেলে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের যৌথসভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছিলেন কাদের।  দেশের জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষতা, সততা, যোগ্যতা ও উন্নয়নের উপর আস্থাশীল উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আবারও এই সরকারের ক্ষমতায় আসা উচিত, দেশের জনগণ আজকে এটাই জল্পনা-কল্পনা করে। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ২০২৪ সালে আমরা ক্ষমতায় থাকবো, এ কথা বলিনি। তবে আমরা মনোবল হারাইনি। আমাদের অনেক কাজই চলমান। এই সরকারের আমলেই কাজগুলো শেষ হবে— এমন কোনো কথা নেই। আমরা আসতেও পারি। আর আসবো কি-না? সেটা তো নির্ধারণ করা নেই। স্বয়ং আল্লাহ এবং জনগণ জানেন।& ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা কাউকে ২৫টি সিটও দেবো না, ৩০ সিটও দেবো না, ৪০ সিটও দেবো না। যেটা বিএনপি সংখ্যাতত্ত্ব নিয়ে করে থাকে। কখনো কখনো তারা আমাদের ৪০ সিট দেয়। কিন্তু আমরা কাউকে কোনো সিট দেবো না। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সরকার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে বলে যে অভিযোগ করা হচ্ছে, তা হাস্যকর। বিষয়টি তা নয়। মামলা চলছে। আপনি মামলায় হাজিরা দিচ্ছেন না। বিচার ব্যবস্থার তো একটা নিয়ম আছে। বিএনপি তো আইন-কানুন, আদালত কিছুই মানে না। আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা কি সরকার জারি করেছে? যা করেছে আদালত করেছেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট এবং জিয়া চ্যারিটেবল ফান্ড মামলা দু’টি কিন্তু এই সরকারের আমলে নয়। আজকে তারা এমনভাবে মিথ্যাচার করছে, মনে হয় যেন এই সরকারই মামলা করেছে।  অপর এক প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, আদালত-আইন নিজস্ব গতিতে চলে। আইন নিজস্ব গতিতে চলবে। এখানে কোনো কৌশলের ব্যাপার নয়। সরকারের এখানে কোনো হস্তক্ষেপ নেই। আদালত যদি গ্রেফতারি পরোয়ানা কোনো থানায় না পাঠায়, তাহলে পুলিশ কিভাবে গ্রেফতার করবে আগাম নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনা আছে কি-না জানতে চাওয়া হলে ক্ষমতাসীন দলের দ্বিতীয় প্রধান বলেন, যদি ইলেকশন এখন থেকে তিন মাসের মধ্যেও হয়, তাহলেও আমাদের সাংগঠনিক প্রস্তুতি থাকবে। এটা তো প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। প্রধানমন্ত্রী তো বলেননি কবে ইলেকশন হবে? আমরা ধরে রাখছি ইলেকশন হবে নিয়ম অনুযায়ী, সংবিধান অনুযায়ী। আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন হওয়ার কথা। এখন প্রধানমন্ত্রী যদি মনে করেন তিনি আগাম নির্বাচন দেবেন, এটা তার এখতিয়ার।